Scroll Top
এক নারীতে আসক্ত পুরুষ বনাম প্রতিটি নারীই প্রতিস্থাপন যোগ্য
Tech & Science

 মূল প্রসঙ্গে যাওয়ার আগে একটা বিষয় জিজ্ঞাসা করা যাক। আপনার যে কৈশর কালের একটা ভালোলাগার কেউ ছিল। তার কি অবস্থা এখন? মনে পড়ে? অথবা যৌবনের শুরুতে যাকে ভালো লেগেছিল সেই ভালোলাগার মানুষটাকে নিয়ে কি আপনি এখনো পড়ে আছেন? সবার যে এমন কেউ ছিল বিষয়টা এমন না। তবে যাদের ছিল তাদের কথা বলছি। পৃথিবীতে স্থায়ী বলে কোনো জিনিস নেই। কোনো কিছুই স্থায়ী না। আপনার শখের নারী কিংবা ভালোবাসার মানুষটাও স্থায়ী কেউ নয়। বয়স ও সময়ের সাথে সাথে মানুষের পছন্দ ও ভালোলাগাও পরিবর্তন হয়। স্থায়ী থাকে না। এবং এটা প্রাকৃতিক একটা প্রক্রিয়া।
আধুনিক সময়ের একজন পুরুষ হিসেবে ভালো থাকতে চাইলে, আপনাকে এই বাস্তবতা স্বীকার করে নিতে হবে যে, আপনার জীবনে আসা সকল নারীই প্রতিস্থাপন যোগ্য তার থেকে আরও ভালো কোনো নারী দ্বারা। এবং আপনাকে এটাও স্বীকার করে নিতে হবে যে, আপনিও আপনার থেকে ভালো পুরুষ দ্বারা প্রতিস্থাপনযোগ্য। এবং এই যে বেটার কাউকে পাওয়ার পর পুরোনো মানুষকে ছেড়ে দিয়ে পার্টনার আপগ্রেড করার যে ব্যাপার, এটার উদাহরণ আপনি সমাজে আপনার আশেপাশে অহরহ দেখতে পাবেন। সেলিব্রেটি থেকে শুরু করে সমাজের অন্যান্য স্তরের বহুমানুষজন আরও ভালো অপশন পাওয়ার পর পুরোনো পার্টনারকে ছেড়ে দিয়ে নতুন কারো হাত ধরেছে। যদিও এটা মেয়েরাই বেশি করে এবং বিপরীতের পুরুষ মানুষটি আর্থিক, মানসিক ও সামাজিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়।
 
এই সমস্যার মূল উৎপত্তি ঠিক তখনই হয় যখন পুরুষ মানুষটি তার মেয়ে পার্টনারকে নিজের জন্য পৃথিবীর প্রথম ও শেষ নারী মনে করে। এক নারীতে আসক্ত হওয়া এটা পুরুষদের জন্য একেবারে রেড লাইন ও মহাবিপদ সংকেত। কিন্তু তার মানে এই না যে, আপনি একটা সম্পর্কে থাকা অবস্থায় আরও একাধিক সম্পর্কে যুক্ত হন। অবশ্যই না। কিন্তু আপনার বর্তমান পার্টনারই আপনার সবকিছু না এবং শেষ না, এটাই আপনাকে খুব ভালোমত বুঝতে হবে। না হলে পুরুষ হিসেবে আপনি যখন এই এককতার মধ্যে ঢুকে যাবেন, এবং একজনকেই যখন নিজের সব মনে করা শুরু করবেন, তখন থেকে আপনাকে এটার জন্য অনেক বড় মূল্য দেয়ার প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। একটা কথা অবিচল সত্য, সেটা হলো মেয়েরা তাদের আবেগের দাস। এখন এই মূহুর্তে আপনার সাথে ভালো আছে তো, আগামীকাল সম্পূর্ণ ভিন্ন ব্যক্তি। তো যখনই আপনি কোনো নির্দিষ্ট নারীকে সবকিছু মনে করা শুরু করবেন, তখন যে কোনো কারণেই হোক সে যদি আপনাকে ছেড়ে চলে যায়, তখন যে আপনি ভেঙেচুরে টুকরো টুকরো হয়ে যাবেন, সেটা জোড়া লাগানোর জন্য তখন অন্য কাউকে আর পাবেন না।
 
 
নিজেকে জোড়া লাগানোর কাজ আপনার নিজেকেই করতে হবে। আর এটার সবথেকে বড় সমাধান হলো, কাউকেই নিজেকে ভেঙে ফেলার মত সুযোগ না দেয়া প্রথম অবস্থাতেই। তাহলে পরবর্তীতে কষ্ট করে আর জোড়া লাগানোর কাজও করতে হবে না। পুরুষ হিসেবে আপনার লক্ষ্য হবে নিজেকে অর্থনৈতিক, শারিরীক, মানসিক ও সামাজিক ভাবে এমন স্তরে নিয়ে যাওয়া, যেখানে আপনিই হবেন সর্বোচ্চ স্তরের পুরুষ যাকে কোনো নারী আকর্ষণ করতে পারে। এবং আপনাকে টপকিয়ে অন্য কাউকে পেতে হলে যেন তাকে তার পুরো সামাজিক স্তর এবং সোশ্যাল সার্কেলই পরিবর্তন করা লাগে। এরপরও যদি কোনো নারী আপনাকে টপকিয়ে বা ছেড়ে যায়, তাহলে ছেড়ে গিয়েও যেন পরবর্তীতে আফসোস করে যে না, আমি আপাতত দৃষ্টিতে বেটার কাউকে পেলেও যেটা ছেড়ে এসেছি সেটার কোনো ক্ষতিপূরণ হয় না।


একজন পুরুষ হিসেবে আপনি তখনই একজন শক্তিশালী ও সুপ্রিম পুরুষ হয়ে উঠবেন, যখন আপনি ধরে নিবেন যে, আপনার পার্টনারের সাথে কাটানো ভালো মূহুর্তগুলো আপাতঃদৃষ্টিতে স্থায়ী মনে হলেও যেকোনো সময় নেই হয়ে যেতে পারে কিংবা বিচ্ছেদে রুপ নিতে পারে। আপনি প্রতিটি ভালো মুহূর্ত উপভোগ করবেন কিন্তু এটাই শেষ হিসেবে ধরে নিবেন না। তার হাসি, তার চাহনি, তার অভিব্যক্তি, তার কথা আপনার ভালো লাগতেই পারে কিন্তু তার মানে এই না যে, সে যদি একান্তই চলে যায় তাহলে তার মত আর কেউ পৃথিবীতে নেই এবং সেই-ই একমাত্র স্পেশাল কেউ ছিল। সে স্পেশাল কেউ নয়। তার থেকেও আরও ভালো ও বেটার অনেক পার্টনার আপনি পাবেন এবং আছে। কিন্তু সমস্যা হলো তাদের সাথে আপনার এখনো সাক্ষাত হয়নি। এজন্য কেউ আপনাকে ছেড়ে চলে গেলে আপনি তার স্মৃতি আঁকড়ে ধরে বসে থাকবেন না, বসে থাকলে আপনি নিজেকে টুকরো টুকরো করে ফেলবেন। তার সাথে যে ভালো স্মৃতি আপনার তৈরি হয়েছিল, তার থেকে আরও ভালো স্মৃতি তৈরি করার আছে যেটা আপনি তার থেকে বেটার কারো সাথে তৈরি করতে পারবেন।

…clinging to the past prevents your future. And She is replaceable.

কেউ ছেড়ে চলে যাওয়া মানেই গল্পের শেষ না। সেটা নতুন শুরুর শুরু। কেউ আপনাকে ছেড়ে চলে গেলে আপনি এমন ভাবে বিষয়টা হ্যান্ডেল করুন যেন কিছুই হয়নি, কিছুই ঘটেনি। কারণ আপনি এটার জন্য আগ থেকেই প্রস্তুত ছিলেন। যে চলে গেছে তার অধ্যায় আপনার জীবনে ওখানেই শেষ। আর যে চ্যাপ্টার আপনি একবার ক্লোজ করেছেন, সে চ্যাপ্টার কখনোই পুনরায় ওপেন করবেন না। কোনো গোয়েন্দা সংস্থা, পুলিশ, সিআইএ কিংবা এ ধরণের রাষ্ট্রীয় অথরোটি যখন কোনো ফাইল ক্লোজ করে, তখন যেমন একেবারে সিলড করে ক্লোজ করে ফেলে তারপর আর্কাইভে পাঠিয়ে দেয়, ঠিক তেমনই আপনি আপনার লাইফ থেকে চলে যাওয়া ব্যক্তিদের ফাইল সিলড করে একেবারে ক্লোজ করে ফেলবেন যেটা আর কখনোই ওপেন হবে না, কোনো অবস্থাতেই না। আপনি একজন পুরুষ, আপনিই রাষ্ট্র, আপনিই আইন। আপনার রাষ্ট্রের আইন প্রণেতা আপনি নিজেই। সেখানে আপনি পুরোনো বিষয়ের পুনারাবৃত্তির কোনো সুযোগ রাখবেন না।
 
জীবনে নতুন মানুষের আগমন হবে, আরও নতুন নতুন অসাধারণ স্মৃতি ও সুন্দর গল্প তৈরি হবে। জীবনের নতুন অধ্যায় পুরনো অধ্যায় থেকে হাজার গুণে সুন্দর হবে। এবং সেটা হবেই। নিজের ও নিজের পরবর্তী প্রজন্মের ভালোর জন্য হলেও আপনাকে পিছনের কথা ফেলে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। যেখানে আরও সুন্দর একটা গল্প ও সুন্দর মানুষেরা আপনার জন্য অপেক্ষা করছে। এবং আপনি পিছনের গল্প ফেলে নতুন গল্পের সূচনার এই প্রক্রিয়া যত ভালোভাবে সম্পন্ন করতে পারবেন, সেটাই আপনার ততবেশি শক্তিশালী ও সুপ্রিম পুরুষ হওয়াকে নির্দেশ করে। সর্বশেষ একটা কথাই মনে রাখবেন, clinging to the past prevents your future. And She is replaceable.

Related Posts

Leave a comment